যুদ্ধে রাশিয়া ২৩ হাজার সেনা হারিয়েছে : জেলেনস্কি

টানা দুই মাসেরও বেশি সময় ধরে ইউক্রেনে সামরিক অভিযান চালাচ্ছে রাশিয়া। অন্যদিকে রুশ আগ্রাসন মোকাবিলায় পশ্চিমা অস্ত্র নিয়ে সাধ্যমতো প্রতিরোধ গড়ে তুলেছে কিয়েভও। এই পরিস্থিতিতে ইউক্রেনে চলমান যুদ্ধকে ‘অর্থহীন’ বলে দাবি করেছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি।

তিনি বলেছেন, ‘অর্থহীন যুদ্ধে’ রাশিয়া ২৩ হাজারেরও বেশি সেনা হারিয়েছে। গতকাল শনিবার (৩০ এপ্রিল) দেওয়া এক ভিডিওবার্তায় এই দাবি করেন জেলেনস্কি।

আজ রোববার (১ মে) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আলজাজিরা।
ভিডিওবার্তায় ইউক্রেনীয় প্রেসিডেন্ট বলেন, সংঘর্ষের সময় এক হাজারেরও বেশি রুশ ট্যাংক, প্রায় ২০০টি বিমান এবং প্রায় আড়াই হাজার সাঁজোয়া যান ধ্বংস করেছে ইউক্রেন। তার দাবি, সামনের সপ্তাহগুলোতে আরও হাজার হাজার রুশ সেনা নিহত হবে এবং হাজারও আহত হবে।

এদিকে রাশিয়ার বিরুদ্ধে ডিনিপ্রোপেত্রোভস্ক অঞ্চলের পাশাপাশি দেশটির দণিাঞ্চলীয় ওডেসা শহরেও হামলা চালানোর অভিযোগ করেছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট।

তিনি অভিযোগ করেন, ‘রাশিয়ার সৈন্যরা বারবার প্রমাণ করছে যে, সমগ্র ইউক্রেনের বাসিন্দাদের মতো ওডেসার মানুষও তাদের শত্রু। ওডেসা বিমানবন্দরের রানওয়ে় ধ্বংস হয়ে গেছে। আমরা অবশ্যই এটি পুনঃনির্মাণ করবো। তবে ওডেসা কখনোই রুশ এই কর্মকাণ্ড ভুলে যাবে না।’

প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কি আরও বলেন, ইতোপূর্বে রাশিয়ার দখলদারিত্বে চলে যাওয়া এলাকাগুলোতে ‘স্বাভাবিক জীবনযাত্রা ফিরিয়ে আনার’ চেষ্টা করা হচ্ছে। তার ভাষায়, ‘রুশ দখলদারিত্ব থেকে মুক্ত করা ৯৩ শতাংশ এলাকায় ইতোমধ্যেই মানবিক ইউনিটের কাজ শুরু হয়েছে। মুক্ত ভূখণ্ডে আমরা সক্রিয়ভাবে ডি-মাইনিং বা মাইন সরানোর কাজ করছি।’

বৈশাখী নিউজ/ জেপা