রাশিয়ার অংশ হতে পুতিনের কাছে আবেদন করেছে খেরসন প্রশাসন

ইউক্রেনে হামলা করার পর পরই কৃষ্ণ সাগরের অঞ্চল খেরসন দখল করে রাশিয়া। এরপর সেখানে তাদের আস্থাভাজন প্রশাসনকে বসায় রুশ বাহিনী।

আর খেরসনে রাশিয়ার এ আস্থাভাজন প্রশাসন জানিয়েছে, তারা প্রেসিডেন্ট পুতিনের কাছে আবেদন করবেন, যেন তাদের রাশিয়ার অংশ হিসেবে যুক্ত করে নেওয়া হয়।

এ ব্যাপারে একটি বিবৃতি দিয়েছে খেরসন প্রশাসন। টেলিগ্রামে দেওয়া এক বিবৃতিতে তারা বলেছে, খেরসনের প্রশাসন প্রেসিডেন্ট পুতিনের কাছে আবেদন করবে এই অঞ্চলকে রাশিয়ার সঙ্গে যুক্ত করতে।

এমন বিবৃতি দেওয়ার পর রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যমে দ্রুত এটি প্রকাশ করা হয়।

খেরসনে সেনা ও বেসামরিক প্রশাসনের প্রধান পদে রাশিয়া বসিয়েছে কিরিল স্ট্রেমোসোভকে।

তিনি বলেছেন, আগামী সপ্তাহ থেকে খেরসনের বাসিন্দারা রাশিয়ার নাগরিকত্ব গ্রহণ করতে পারবেন এবং রাশিয়ার পাসপোর্ট নিতে পারবেন।

খেরসনের নাগরিকদের রাশিয়ার নাগরিকত্ব ও পুরো খেরসনকে রাশিয়ার অংশ করার ব্যাপারে কিরিল স্ট্রেমোসোভকে বলেন, আমরা গণভোটের পরিকল্পনা করছি না এবং আমরা রিপাবলিক তৈরি করার পরিকল্পনাও করছি না।

তিনি আরও বলেন, আমরা সেই বিষয়টি নিয়ে বলছি, আমাদের যতগুলো সুযোগ আছে তার সব নিয়ে রাশিয়ার সঙ্গে একীভূত হব।

কিরিল স্ট্রেমোসোভকে আরও বলেন, আর খেরসনে যেসব নাগরিক আছেন তারা রাশিয়ার নাগরিকত্ব এবং পাসপোর্ট পাবেন।

সূত্র: সিএনএন

বৈশাখী নিউজ/ ইডি