বাংলাদেশের প্রতিটি নাগরিকের দায়িত্ব আমার: প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আমি যখন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী, তার মানে বাংলাদেশের প্রতিটি নাগরিকের দায়িত্ব আমারই। মত-ভিন্নতা থাকতে পারে, পথ-ভিন্নতা থাকতে পারে, আদর্শ-ভিন্নতা থাকতে পারে, কিন্তু তারপরও মানুষ মানুষই। মানুষকে আমি মানুষ হিসেবেই দেখি। আর প্রত্যেকটা মানুষ সুন্দরভাবে বাঁচবে সেটাই আমি চাই।

বৃহস্পতিবার গৃহহীন আরও ২৬ হাজার ২২৯ পরিবারকে জমিসহ ঘর হস্তান্তর কার্যক্রমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি। গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে অনুষ্ঠানে যুক্ত ছিলেন প্রধানমন্ত্রী।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত সকলের উদ্দেশে সরকারপ্রধান বলেন, সবাইকে আমার অনুরোধ থাকবে, আপনারা আপনাদের কর্মস্থলে খুঁজে দেখেন, একটি মানুষও ভূমিহীন আছে কিনা, গৃহহীন আছে কিনা। অন্যান্য দলেরও যারা তাদেরকেও আমি বলব যে, কারও কাছে যদি একটা খবর থাকে যে, বাংলাদেশের একটি মানুষ ভূমিহীন-গৃহহীন আছে, অবশ্যই আমাদের খবর দেবেন। যেই গৃহহীন থাকবে, দল-মত নির্বিশেষে আমরা তাদেরকেই ঘর করে দেব।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা চাইছি, আমাদের বাংলাদেশে শতভাগ ভূমিহীন-গৃহহীন পুনর্বাসন হবে। প্রত্যেকটা মানুষ তার ঠিকানা পাবে। এটাই আমরা করতে চাচ্ছি।

প্রত্যেক নাগরিকের প্রতি সরকারের দায়িত্বের কথা তুলে ধরে শেখ হাসিনা বলেন, আমার বাবার সেটাই শিক্ষা যে, এই দেশের মানুষকে আমি সুন্দরভাবে জীবন-জীবিকার ব্যবস্থা করে দিয়ে যেতে চাই। ঘর করে দেব, তাদের ঠিকানা দেব, তাদের জীবন জীবিকার ব্যবস্থা করে দেব।

বৈশাখী নিউজ/ জেপা