নেতার জানাজার ছবি পোস্ট দুপুরে, রাতে ফেসবুকেই এলো তার মৃত্যুর খবর

নেতার জানাজায় অংশ নেওয়ার ছবি দুপুরে নিজের ফেসবুকে পোস্ট করে ওইদিন রাতেই নিজেও মৃত্যুর কোলে ঢোলে পড়েছেন হামিদ হাসান মিশকাত (২২) নামে এক ছাত্রলীগ কর্মী। নিজের সেই পোস্টের কমেন্টের মাধ্যমেই তার মৃত্যুর খবরটিও উঠে এসেছে। চট্টগ্রামের চন্দনাইশ উপজেলার দেওয়ানহাট এলাকায় সোমবার এমনই এক নির্মম ঘটনা ঘটেছে।

নিহত মিশকাতের বাড়ি লোহাগাড়ার পূর্বকলাউজানের শহর বানুর বাপের বাড়ির এলাকায়। তিনি সরকারি হাজি মুহাম্মদ মহসীন কলেজের বিবিএ দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ও ছাত্রলীগ কর্মী।

জানা গেছে, সোমবার (২৮ জানুয়ারি) সকালে উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও মুক্তিযোদ্ধা নুরুল আলম চৌধুরীর নামাজে জানাজায় অংশ নিয়ে সে ছবি ফেসবুকে পোস্ট করেছিলেন হামিদ হাসান মিশকাত। ওইদিনই (সোমবার) রাতে এক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হন হামিদ হাসান মিশকাত ও তার বন্ধু সাইফুল ইসলাম রকি।

ওই ছাত্রলীগ নেতা মৃত্যুর আগে দুপুরে জানাজার ছবি নিজের ফেসবুকে পোস্ট করে লিখেছিলেন, ‘বীর মুক্তিযোদ্ধা, চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জননেতা আলহাজ নুরুল আলম চৌধুরীর জানাজায়।’

কিন্তু ভাগ্যের নির্মম পরিহাস! সে রাতেই মিশকাত ও তার বন্ধু সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হন। আর সেই মিসকাতের নিহতের খবর সেই ফেসবুকে পোস্ট করেছেন তারই কোনো বন্ধু!

মিশকাত পৃথিবীর মায়া ছেড়ে অকালে চলে গেলেও তার ফেসবুক পোস্টটি জ্বলজ্বল করছে। সেই পোস্টে এ টি এম নোমান নামে মিশকাতের এক বন্ধু লিখেছেন, ‘ভাগ্যের কি নির্মম পরিহাস, আজ তুই একজনের জানাজা পড়ে পোস্ট দিছিস, ২৪ ঘণ্টা না হতেই তোর মৃত্যুর খবর শুনতে হলো। কাল হয়তো তোর জানাজা পড়ে আমি পোস্ট করব। এইভাবে চলছে আমাদের জীবন। সবাইকে একদিন রবের কাছে চলে যেতে হবে তার ডাকে!’

সাজিদ ইসলাম সজীব নামে এক বন্ধু লিখেছেন, ‘মিশকাত কি জানতো? ….কিচ্ছু বলার নাই। এভাবে মৃত্যু মেনে নেওয়া যায় না। ….কোনো প্রশ্নের উত্তর পাবো না। ’