করোনা ইস্যুতে বাঁধাকপি নিয়ে গুজব ভারতে

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি খবর ভাইরাল হয়েছে যে, বাঁধাকপির উপর করোনাভাইরাস সবচেয়ে বেশি সময় বেঁচে থাকতে পারে। এবং এই তথ্য নাকি জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। আসলেই কি বাঁধাকপি নিয়ে এমন তথ্য দিয়েছে সংস্থাটি। করোনা ইস্যুতে ভারতে সম্প্রতি ছড়িয়ে পড়েছে বাঁধাকপি এড়িয়ে চলার।

মহামারী করোনাভাইরাসে প্রতিদিনই আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। এবং এই ভাইরাস থেকে বাঁচতে স্বাস্থ্য সংস্থার নির্দেশ মেনে চলা ছাড়া আপাতত কোনও গতি নেই। কিন্তু সোশ্যাল মিডিয়ায় এমন নানা খবর প্রচারিত হচ্ছে যা সহজে ভাইরালও হচ্ছে। কখনও কেউ বলছেন, গরম পানিতে গলা গড়গড় করলে করোনা মরে যায়, কারও আবার মত মদ খেলে করোনা শরীরে থাবা বসাতে পারে না।

কিন্তু বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এমন কোনও তথ্য দেয়নি। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া এমনই একটি তথ্য হল বাঁধাকপির উপর সবচেয়ে বেশি সময় বেঁচে থাকতে পারে করোনাভাইরাস। সুতরাং, বাঁধাকপি এবং তা দিয়ে তৈরি সমস্ত জিনিস থেকে দূরে থাকুন। দাবি করা হয়েছে বাঁধাকপির উপর করোনা বেঁচে থাকতে পারে প্রায় ৩০ ঘণ্টা।

কিন্তু বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলছে, এমন কোনও তথ্য নেই। এটি ভুয়া মেসেজ। মানুষের এ ধরনের গুজবে একেবারেই বিভ্রান্ত হওয়ার কোনও কারণ নেই বলে জানিয়েছে ভারতীয় বিশেষজ্ঞরা। তবে বাঁধাকপির মধ্যে থাকা এক ধরনের পোকা যদি শরীরে যায় তা থেকে মানুষ অসুস্থ হতে পারেন। তাই শুধু সেদ্ধ করা বাঁধাকপি না খাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। বাঁধাকপির আস্তরণ খুলে ভিতরের অংশ জীবাণুমুক্ত করে রান্না করতে বলা হয়েছে।

সূত্র : এই সময়।

বৈশাখী নিউজইডি