করোনায় ফ্রান্সে একদিনে ১৪১৭ জন মারা গেছেন

গত বছরের ৩১ ডিসেম্বর চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহুরে প্রথম করোনাভাইরাসের উপস্থিতি ধরা পড়ে। এরপর থেকেই তা সারাবিশ্বে ছড়িয়ে পড়েছে। বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্র এবং ইউরোপের দেশগুলোতে সবচেয়ে বেশি তাণ্ডব চালাচ্ছে করোনাভাইরাস।

এখন পর্যন্ত ইউরোপের দেশ ইতালিতে সবচেয়ে বেশি মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে। এদিকে, ফ্রান্সেও সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে মৃত ও আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে।

ফ্রান্সে এরই মধ্যে মৃতের সংখ্যা ১০ হাজার ছাড়িয়ে গেছে। অপরদিকে আক্রান্তের সংখ্যা লাখের বেশি। ইউরোপের এই দেশটি এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যায় বিশ্বের চতুর্থ অবস্থানে রয়েছে।

ফ্রান্সে এখন পর্যন্ত ১ লাখ ৯ হাজার ৬৯ জন প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে এবং মারা গেছে ১০ হাজার ৩২৮ জন। অপরদিকে এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়ে উঠেছে ১৯ হাজার ৩৩৭ জন। তবে করোনায় আক্রান্ত ৭ হাজার ১৩১ জনের অবস্থা এখনও আশঙ্কাজনক। ফ্রান্সে মঙ্গলবার নতুন করে ১৪১৭ জন মারা গেছেন। নতুন আক্রান্ত ১১ হাজার ৫৯ জন।

অপরদিকে ইতালিতে এখন পর্যন্ত মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১ লাখ ৩৫ হাজার ৫৮৬ এবং মারা গেছে ১৭ হাজার ১২৭ জন। দেশটিতে এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়ে উঠেছে ২৪ হাজার ৩৯২ জন।

এখন পর্যন্ত বিশ্বের ২০৯টি দেশ ও অঞ্চলে করোনার প্রকোপ ছড়িয়ে পড়েছে। বিশ্বের এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ১৪ লাখ ৩১ হাজার ৬৮৯। বিশ্বের ৮২ হাজার ৭৪ জনের প্রাণ কেড়ে নিয়েছে করোনা। অপরদিকে, করোনা থেকে সুস্থ হয়ে উঠেছে ৩ লাখ ২ হাজার ১৪২ জন।

এদিকে, স্পেনে গত পাঁচদিনের মধ্যে সবচেয়ে বেশি মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে মঙ্গলবার। সেখানে একদিনেই ৭৪৩ জনের প্রাণ কেড়ে নিয়েছে করোনাভাইরাস।

বৈশাখী নিউজবিসি