সৌদি আরবের জন্য শত শত ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র তৈরি করবে বোয়িং

মার্কিন বিমান প্রস্তুতকারক কম্পানি বোয়িং সৌদি আরবের জন্য শত শত ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র তৈরি করবে। গত ছয় বছর ধরে সৌদি আরব যখন দারিদ্র্যপীড়িত ইয়েমেনের উপর বর্বর সামরিক অভিযান চালাচ্ছে তখন মার্কিন কম্পানি সেই সৌদি আরবের জন্য এসব ক্ষেপণাস্ত্র তৈরির কর্মসূচি হাতে নিয়েছে।

পেন্টাগন বুধবার জানিয়েছে, সৌদি আরবে এক হাজারেরও বেশি আকাশ থেকে ভূমিতে নিক্ষেপণযোগ্য ক্ষেপণাস্ত্র এবং জাহাজ বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র সরবরাহের জন্য বোয়িংকে দুই বিলিয়ন ডলারেরও বেশি চুক্তি দেওয়া হয়েছে।

সৌদি আরব সরকারকে ৬৫০টি নতুন ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র এবং সালাম ইআর ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্রের আধুনিকায়নের জন্য ১ দশমিক ৯৭ বিলিয়ন ডলারের প্রথম চুক্তিটি করা হয়েছে। ১৫৫ নটিক্যাল মাইল (প্রায় ১৮০ মাইল, ২৯০ কিলোমিটার) পরিসীমা সহ একটি জিপিএস-নির্দেশিত এয়ার-টু-সারফেস ক্ষেপণাস্ত্র সালাম ইআর আধুনিকায়নের কাজ ২০২৮ সালের ডিসেম্বরের মধ্যে শেষ হবে।

এছাড়া পেন্টাগন সৌদি আরবকে ৪৬৭টি সম্পূর্ণ নতুন হারপুন ব্লক অ্যান্টি-শিপ ক্ষেপণাস্ত্র সরবরাহের জন্য ৬৫০ মিলিয়ন ডলারের আরেকটি চুক্তিও ঘোষণা করেছে।

পেন্টাগন বলেছে, সৌদি আরবকে সমর্থনের অংশ হিসেবে সাড়ে ছয়শ নতুন ক্ষেপণাস্ত্র নির্মাণ করবে এবং কিছু ক্ষেপণাস্ত্র আধুনিকায়ন করবে। পেন্টাগন জানিয়েছে ২০২৮ সালের মধ্যে সৌদি আরবকে এসব ক্ষেপণাস্ত্র হস্তান্তর সম্পন্ন হবে।

সৌদি আরবকে এই ক্ষেপণাস্ত্র সরবরাহের কর্মসূচি হাতে নিয়ে আমেরিকা নতুন করে প্রমাণ দিল যে, মধ্যপ্রাচ্যে সৌদিআরব তাদের গুরুত্বপূর্ণ ও ঘনিষ্ঠ মিত্র।সূত্র- গ্লোবাল টাইমস।

বৈশাখী নিউজএপি