করোনায় যুক্তরাষ্ট্রে মৃতের সংখ্যা ১ লাখ ১৩ হাজার ছাড়িয়েছে

করোনার প্রকোপে যুক্তরাষ্ট্রে থামছেই স্বজন হারাদের মিছিল। যাতে এখন পর্যন্ত দেশটির সোয়া ২০ লাখের বেশি মানুষ সংক্রমিত হয়েছেন। এর মধ্যে বেঁচে ফিরতে পারেননি ১ লাখ ১৩ হাজারের বেশি মানুষ।

প্রতিদিনই এখনও দেশটিতে আশঙ্কাজনকহারে বেড়েই চলেছে আক্রান্তের সংখ্যা। এমন অবস্থায় প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প চলতি সপ্তাহেই ২০ লাখ ডোজ করোনার প্রতিষেধক প্রস্তুতের খবর দিয়েছেন। তবে, তা প্রয়োগ ও নিরাপদ প্রমাণ করে হাতে পৌঁছতে লাগবে আরও কিছু সময়। ততদিনে প্রাণহানি কোথায় গিয়ে দাঁড়ায় সেটাই দেখার বিষয়।

বিশ্বখ্যাত জরিপ সংস্থা ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্যানুযায়ী যুক্তরাষ্ট্রে গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্তের তালিকায় যোগ হয়েছে ১৯ হাজার ৪৪ জন। এতে আক্রান্তের সংখ্যা ২০ লাখ ২৬ হাজার ৪৯৩ জনে দাঁড়িয়েছে। প্রাণ গেছে আরও ৫৮৬ জনের। এ নিয়ে দেশটির ১ লাখ ১৩ হাজার ৫৫ জন মানুষের মৃত্যু হলো করোনায়। যদিও সুস্থ হয়ে ঘরে ফিরেছেন পৌনে ৮ লাখ মানুষ।

এর মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে বৃহৎ শহর নিউইয়র্কেই আক্রান্ত ৪ লাখে পৌঁছেছে। যেখানে সাড়ে ৩০ হাজারের বেশি মানুষের প্রাণ কেড়েছে করোনা। দ্বিতীয় স্থানে থাকা নিউ জার্সিতে আক্রান্ত ১ লাখ সাড়ে ৬৭ হাজারের কাছাকাছি। এর মধ্যে ১২ হাজার ২৯২ জনের মৃত্যু হয়েছে।

আক্রান্ত বেড়েছে ক্যালিফোর্নিয়ায়। যেখানে সংক্রমণ ১ লাখ প্রায় ৩৪ হাজার, প্রাণহানি ৪ হাজার  ৬৭৬ জন। ইলিনয়সে আক্রান্ত ১ লাখ ২৮ হাজার ছাড়িয়েছে। মৃত্যু হয়েছে ৫ হাজার ৯২৪ জনের।

সংক্রমণ ১ লাখ সাড়ে ৩ হাজারে পেরিয়েছে ম্যাসাসুয়েটসসে, যেখানে প্রাণহানি ঘটেছে ৭ হাজার ৩৫৩ জনের। করোনার সংক্রমণ ৮০ হাজার ছাড়িয়েছে পেনসিলভেনিয়ায়। প্রাণ গেছে সেখানে ৬ হাজারের বেশি মানুষের।

এদিকে, কৃষ্ণাঙ্গ জর্জ ফ্লয়েড হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদে এখনও বিভিন্ন শহরে অব্যবহত রয়েছে বিক্ষোভ। তবে, প্রথম দিকের সহিংস বিক্ষোভ বর্তমান শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভে রূপ নিয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে ওয়াশিংটন ডিসি থেকে সেনা প্রত্যাহারের ঘোষণা দিয়েছেন ট্রাম্প।

বৈশাখী নিউজজেপা