সৌদিতে আটকে পড়াদের ফেরাতে বিমানের বিশেষ ফ্লাইট

সময়: 1:15 pm - June 13, 2020 | | পঠিত হয়েছে: 3 বার

করোনাভাইরাস সংকটে যেসব বাংলাদেশি সৌদি আরবে আটকে আছেন, তাদের দেশে ফেরাতে বিমান দুটি বিশেষ ফ্লাইটের ব্যবস্থা করেছে সৌদি দূতাবাস।আগামী ২০ জুন রিয়াদ থেকে একটি এবং ১ জুলাই জেদ্দা থেকে অন্য ফ্লাইটটি ঢাকার পথে রওনা হবে।

যারা দেশে ফিরতে আগ্রহী তাদের দূতাবাসের ওয়েবসাইটের একটি লিংকে গিয়ে নিবন্ধন করতে বলা হয়েছে। https://docs.google.com/forms/d/e/1FAIpQLSepAeZBIF5dObjPAVhU2T-nbJiEjyNyiISJCW8xHcSlZX3dzQ/viewformকরোনাভাইরাসের মহামারীতে সৌদি আরবসহ প্রায় সব দেশের সঙ্গে বাংলাদেশের বিমান চলাচল বন্ধ রয়েছে।

ফেলে সৌদি আরবে বসবাসরত বাংলাদেশিদের অনেকে দেশে ফিরতে চাইলেও তা পারছেন না।এ পরিস্থিতিতে যারা শারীরিকভাবে অসুস্থ কিংবা পারিবারিক জরুরি প্রয়োজনে ফিরতে চান কিংবা যারা চূড়ান্তভাবে দেশে ফিরতে চাচ্ছেন, তাদের জন্য বিশেষ ফ্লাইটের এই উদ্যোগ বলে জানিয়েছেন সৌদি আরবে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত গোলাম মসীহ। তিনি বলেন, ‘সৌদি আরবে প্রায় ২১ লাখ বাংলাদেশি বসবাস করেন।

অনেকেই জরুরি পারিবারিক প্রয়োজনে দেশে ফিরতে চান, অনেক অসুস্থ প্রবাসী রয়েছেন, এখানের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত অনেক ছাত্ররা দেশে যাওয়ার অপেক্ষায় রয়েছেন, অনেকেভিজিট ভিসায় এসে দেশে ফিরে যেতে পারছেনা আমরা সবার কথা ভেবে এই উদ্যোগ গ্রহণ করেছি।

’রাষ্ট্রদূত বলেন, বাংলাদেশি পাসপোর্টধারীরা যারা দূতাবাসের মাধ্যমে রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন করবেন, শুধু তারাই এই ফ্লাইটে ভ্রমণ করতে পারবেন। যাত্রীরা সৌদি আরবের বাংলাদেশ বিমানের নির্দিষ্ট অফিস থেকে টিকেট কিনবেন।নিবন্ধনের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘অগ্রাধিকার ভিত্তিতে এ রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন হবে।

রেজিস্ট্রশনকারীদের দূতাবাসের পক্ষ থেকে ফোন করে রিয়াদের জন্য ৪০০ জন ও জেদ্দার জন্য ৪০০ জন প্রবাসীকে টিকেট ক্রয়ের জন্য নির্দিষ্ট সময় জানিয়ে দেওয়া হবে। পরবর্তী সময় আসন ফাঁকা থাকা সাপেক্ষে অন্যদের ক্রমানুসারে ফোন করা হবে।

’বিমান বাংলাদেশ কর্তৃপক্ষ রিয়াদ-ঢাকা একমুখী যাত্রার টিকেটের মূল্য ইকনমি ক্লাস ২৮০০ সৌদি রিয়াল ও বিজনেস ক্লাস ৩৮০০ সৌদি রিয়াল নির্ধারণ করেছে। জেদ্দা-ঢাকা বিমানের একমুখী যাত্রার টিকেটের মূল্য ধরা হয়েছে ইকোনমি ক্লাসের জন্য ৩০৩০ সৌদি রিয়াল ও বিজনেস ক্লাস ৪০৩০ সৌদি রিয়াল।

এই ফ্লাইটে টিকেট কিনতে হলে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত নন/কোনো উপসর্গ নেই- সৌদি কর্তৃপক্ষ-কর্তৃক ইস্যুকৃত এমন সার্টিফিকেট প্রত্যেক যাত্রীকে অবশ্যই সঙ্গে রাখতে হবে। ঢাকায় অবতরণের পর বিমানবন্দরে তা জমা দিতে হবে। প্রত্যেক যাত্রীকে মাস্ক, হ্যান্ড গ্লাভস পরাসহ প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্যবিধি অবশ্যই মেনে চলতে হবে।

বৈশাখী নিউজজেপা

Share Now

এই বিভাগের আরও খবর