শেয়ারবাজারে সূচকের পতন ঘটেছে

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সপ্তাহের চতুর্থ কার্যদিবস বুধবার (৩ নভেম্বর) সূচকের বড় পতনের মধ‌্য দিয়ে লেনদেন শেষ হয়েছে। এ দিয়ে টানা চতুর্থ কার্যদিবস শেয়ারবাজারে সূচকের পতন ঘটেছে। এদিন ডিএসই ও সিএসইতে টাকার পরিমাণে লেনদেন কমেছে। তবে লেনদেন হওয়া অধিকাংশ কোম্পানির শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ইউনিটের দাম কমেছে।

ডিএসই ও সিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

বুধবার ডিএসই’র প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৫৬.০৭ পয়েন্ট কমে ৬ হাজার ৮৯৮.২৭ পয়েন্টে অবস্থান করছে। এর আগে ১০ অক্টোবর ডিএসইএক্স সূচক ৭ হাজার ৩৬৭.৯৯ পয়েন্টে পৌঁছে নতুন রেকর্ড গড়েছিলো। তবে গত ২৫ অক্টোবর ডিএসইএক্স সূচক ১২০ পয়েন্ট কমে যায়।

ডিএসই-৩০ সূচক ২০.১৩ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ২ হাজার ৫৮৫.৮০ পয়েন্টে। গত ৬ অক্টোবর ডিএস-৩০ সূচক ২ হাজার ৭৮৭.৮১ পয়েন্টে পৌঁছে নতুন রেকর্ড গড়েছিলো।

ডিএসইএস সূচক ৭.০১ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১ হাজার ৪৬১.১৬ পয়েন্টে। গত ৬ অক্টোবর ডিএসইএস সূচক ১ হাজার ৬০০.২৫ পয়েন্টে পৌঁছে নতুন রেকর্ড গড়েছিলো।

এদিন ডিএসইতে ৩৭৫ কোম্পানির শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৮৯টির, কমেছে ২৪৬টির এবং অপরিবর্তিত আছে ৪০টির। দিন শেষে ডিএসইতে এদিন ১ হাজার ১৫০ কোটি ৭৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে, যা আগের দিনের চেয়ে ১৪৪ কোটি টাকা বেশি।

অপর শেয়ারবাজার সিএসইর প্রধান সূচক সিএসইএক্স ১১৪.৯৯ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১২ হাজার ১৪১.৫৮ পয়েন্টে। গত ৩ অক্টোবর সিএসইএক্স সূচক ১২ হাজার ৯৪০.৫১ পয়েন্টে পৌঁছে নতুন রেকর্ড গড়েছিলো। তবে ২৫ অক্টোবর সিএসসিএক্স সূচক ২৩৭ পয়েন্ট কমে।

সার্বিক সিএএসপিআই সূচক ১৯২.১২ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ২০ হাজার ৪০২.৯৮ পয়েন্টে। এর আগে ৩ অক্টোবর সিএএসপিআই সূচক ২১ হাজার ৫৪৯.২৪ পয়েন্টে পৌঁছে নতুন রেকর্ড গড়েছিলো।

বৈশাখী নিউজ/ ইডি