যুক্তরাষ্ট্রকে অর্থ ছাড়ের আহ্বান তালেবানের

আফগানিস্তানের রিজার্ভের অর্থ ছাড়াতে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে তালেবান সরকার।

কাতারের রাজধানী দোহায় দেশটির উচ্চপর্যায়ের প্রতিনিধিদলের সঙ্গে দুই দিনব্যাপী আলোচনা মঙ্গলবার শেষ হয়।

বৈঠকে আফগান প্রতিনিধিদল তাদের রাষ্ট্রীয় সম্পদ ছাড় করার পাশাপাশি মার্কিন নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার দাবি জানায়। এছাড়া, আফগান পরিস্থিতি নিয়ে জাতিসংঘের কাজে তালেবান সরকার সমর্থন দিয়ে যাবে বলে জানিয়েছে।

আফগানিস্তান বিষয়ক মার্কিন বিশেষ প্রতিনিধি টমাস ওয়েস্ট এবং তালেবান সরকারের ভারপ্রাপ্ত পররাষ্ট্রমন্ত্রী আমির খান মুত্তাকি নিজ নিজ প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দেন।

এর আগে দু’পক্ষের মধ্যে প্রথম দফা আলোচনাও গত অক্টোবরে দোহায় অনুষ্ঠিত হয়েছিল।

দ্বিতীয় দফা আলোচনাকে ইতিবাচক বলে উল্লেথ করেছেন আফগান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র আব্দুল কাহার বালখি।

বৈঠকের পর টুইটার পোস্টে তিনি জানান, দু’পক্ষ রাজনীতি, অর্থনীতি, শিক্ষা, স্বাস্থ্য এবং জনকল্যাণ ইস্যু নিয়ে আলোচনা করেছে।

গত ১৫ আগস্ট আফগানিস্তানের ক্ষমতার নিয়ন্ত্রণ নেয় তালেবান। আগস্টের শেষে আফগানিস্তান ত্যাগ করে যুক্তরাষ্ট্রসহ পশ্চিমা বাহিনী। এর মধ্য দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের ২০ বছরের আফগান যুদ্ধের সমাপ্তি ঘটে। পরের মাসে তালেবান অন্তর্বর্তী সরকার গঠন করে।

আফগানিস্তানে তালেবানের উত্থানের পর থেকেই দেশটি চরম আর্থিক সংকটে রয়েছে । যুক্তরাষ্ট্র দেশটির রিজার্ভের এক হাজার কোটি মার্কিন ডলার জব্দ করেছে। একই কারণে বিশ্ব ব্যাংক ও আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলও (আইএমএফ) সহায়তা স্থগিত করেছে।

আর্থিক সমস্যায় জর্জরিত আফগানিস্তানে দেখা দিয়েছে তীব্র খরা। ফলে শীতের সময় দেশটির ২ কোটি ২০ লাখ নাগরিক

‘চরম’ খাদ্যসংকটে’ পড়তে পারে বলে সতর্ক করেছে জাতিসংঘ।

পরিস্থিতি সামাল দিতে বিশ্ব ব্যাংকও আফগানিস্তানে ফের সহায়তা চালুর বিষয়টি বিবেচনা করছে।

আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলো বলছে, বিশ্ব ব্যাংক উদ্যোগী হলে আফগানিস্তান রিকন্সট্রাকশান ট্রাস্ট ফান্ড(এআরটিএফ) থেকে ৫০ কোটি ডলার পাবে আফগানিস্তানের মানবিক সংস্থাগুলো। সূত্র: রয়টার্স

বৈশাখী নিউজ/ বিসি