ওমিক্রন ঠেকাতে মুম্বাইয়ে ১৪৪ ধারা জারি

ভারতের বাণিজ্যিক রাজধানী মুম্বাইয়ে ওমিক্রন ঠেকাতে জারি করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার থেকে এটি কার্যকর করা হয়েছে।

শুধু মুম্বাইয়ে গত বুধবার ২ হাজার ৪৪৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়। এদের মধ্যে ওমিক্রন শনাক্ত হয় ৩৮ জনের। তাদের কেউই সম্প্রতি বিদেশফেরত নন।

এ পরিস্থিতিতে ভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে মহারাষ্ট্র সরকার ৩০ ডিসেম্বর থেকে আগামী ৭ জানুয়ারি পর্যন্ত মুম্বাইয়ে ১৪৪ ধারা জারি করেছে। সরকার বলেছে, এবার নতুন বছর উপলক্ষে মুম্বাইয়ে কোনো পার্টির আয়োজন করা যাবে না। অর্থাৎ রেস্তোরাঁ, পাব, আবাসিক হোটেল, পানশালা, ক্লাব ও রিসোর্টগুলোয় জনসমাগম করা যাবে না।

মুম্বাইয়ে হঠাৎ সংক্রমণ বাড়ায় রাজ্য সরকার বেশ উদ্বিগ্ন। বুধবার প্রায় আড়াই হাজার শনাক্ত ও করোনায় আক্রান্ত একজনের মৃত্যুর পর ওই উদ্বেগ আরও বেড়েছে।

রাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্রী রাজেশ তোপে বলেছেন, আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা ভয়ংকর গতিতে বাড়ছে। এখন শনাক্তের হার ৪। এটা ৫ শতাংশে গিয়ে ঠেকলে দিল্লির মতো নানা নিষেধাজ্ঞা জারি করা হবে। তাই সবাইকে আরও বেশি সাবধান হতে হবে। এ ছাড়া বিয়ে বা অন্য কোনো জনসমাগম থেকে দূরে থাকতে হবে।

নতুন বছর উপলক্ষে জনসমাগম ঠেকাতে কোভিড-সংক্রান্ত বিধিনিষেধ জারি করে রাজ্য সরকার।

মহারাষ্ট্রের পরিবেশমন্ত্রী আদিত্য ঠাকরে বলেছেন, যাঁরা এসব নিয়ম মানবেন না, তাঁদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এদিকে রাজ্যের স্বাস্থ্য বিভাগ থেকে বলা হয়েছে, মুম্বাইয়ে করোনা শনাক্তের হার বাড়লেও বেশির ভাগ রোগীকে হাসপাতালে ভর্তি করার প্রয়োজন হচ্ছে না। গত সপ্তাহে শনাক্ত ৩৫৪ জনের মধ্যে ১৪ জন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। তবে আক্রান্ত ৩৫৪ জনের মধ্যে ৭৫ শতাংশ করোনার দুই ডোজ টিকা নিয়েছিলেন।

বৈশাখী নিউজ/ জেপা