করোনা মোকাবিলায় বিশেষজ্ঞ দল পাঠাতে চীনের প্রতি অনুরোধ পররাষ্ট্রমন্ত্রীর

চীনের স্টেট কাউন্সিলর ও পরররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই বাংলাদেশর পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেনকে ফোন করেছিলেন। এ সময় করানাভাইরাস চিকিৎসায় বাংলাদেশের চিকিৎসক নার্সদের প্রশিক্ষণ দিতে চীনা বিশেষজ্ঞ দল পাঠানোর অুনরোধ করেন ড. মোমেন।

মঙ্গলবার হওয়া দুই দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর এ ফোনালাপে ড. এ কে আবদুল মোমেন শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভার ইনস্টিটিউট অ্যান্ড হাসপাতালের জন্য দক্ষ প্রযুক্তিবিদ নিয়ে আসার জন্য চীনের সহায়তা চান। ঢাকায় এই হাসপাতালটি করোনাভাইরাস চিকিৎসার জন্য ঘোষণা করা হয়েছে এবং বিশেষ সুবিধাসম্পন্ন করে প্রস্তুত করা হয়েছে।

বুধবার (৮ এপ্রিল) পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পাঠানো প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, চীনের স্টেট কাউন্সিলর ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং আইয়ের সঙ্গে টেলিফোনে প্রায় ৪৫ মিনিট কথা বলেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. মোমেন। আলাপকালে চীনা পণ্যের ঋণপত্রের মেয়াদ এক বছর করার জন্যও অনুরোধ জানান তিনি।

এতে আরও বলা হয়, করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের চিকিৎসায় বিশেষায়িত হাসপাতাল হিসেবে তৈরি করা শেখ রাসেল হাসপাতালের জন্য একটি বিশেষজ্ঞ দল পাঠাতে চীনের কাছে অনুরোধ করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। এছাড়া, চীন থেকে ভেন্টিলেশন মেশিন আমদানির বিষয়েও তাদের মধ্যে আলোচনা হয়েছে।

আলোচনায় ড. মোমেন চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে সেদেশ থেকে আমদানিকৃত পণ্যের বিপরীতে খোলা ঋণপত্রের (এলসি) মূল্য পরিশোধের মেয়াদ এক বছর বাড়ানোর জন্যও অনুরোধ করেন। এ বিষয়ে চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইতিবাচক মনোভাব দেখিয়েছেন বলে বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

এতে বলা হয়, রোহিঙ্গাদের দ্রুত প্রত্যাবাসনের ওপর জোর দিয়ে মোমেন এ বিষয়ে চীনের সহযোগিতা চাইলে চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, দ্রুত প্রত্যাবাসন হওয়া উচিত। এ বিষয়ে চীনের সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে বলেও তিনি জানান।

বৈশাখী নিউজইডি