জীবিকা হারানো প্রত্যেক পরিবারকে নগদ ১২ হাজার রুপি দিচ্ছে পাকিস্তান

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে কোপে জীবিকা হারানো দিনমজুর ও নিম্ন আয়ের দরিদ্র মানুষদের নগদ অর্থ বরাদ্দ দেওয়া শুরু করেছে পাকিস্তান সরকার। গোটা দেশের এমন দরিদ্র মানুষের জন্য ১ হাজার ৪৪০ কোটি রুপির তহবিল বরাদ্দ করেছে ইমরান খানের সরকার।

পাকিস্তানের জাতীয় দৈনিক ডন অনলাইনের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, নিম্ন-আয়ের পরিবারের জন্য বরাদ্দকৃত প্রায় ৮৬৩ মিলিয়ন ডলারের ওই তহবিল নগদ অর্থ হিসেবে প্রদানের জন্য দেশজুড়ে আনুমানিক ১৭ হাজার বিতরণ কেন্দ্র তৈরি করেছে পাকিস্তান সরকার।

দেশটির হাবিব ব্যাংক লিমিটেড ও ব্যাংক আল-ফালাহ’র প্রায় ১৭ হাজার শাখার মাধ্যমে প্রথম দফায় এই নগদ অর্থ প্রদান কর্মসুচি শুরু হয়েছে আজ থেকে। পর্যায়ক্রমে তালিভূক্ত সবাইকে এই অর্থ দেওয়া হবে।

এজন্য পাকিস্তানের কেন্দ্রীয় সরকার প্রথম ধাপে ব্যাংক দুটিতে ৫০০ কোটি রুপি বরাদ্দ করেছে। সেখান থেকে নিম্ন-আয়ের প্রত্যেক পরিবারকে ১২ হাজার রুপি করে প্রদান করা হবে; যারা দেশজুড়ে লকডাউন পরিস্থিতির কারণে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন, যাদের জীবনযাপন অনিশ্চয়তার মুখে তাদের এই নগদ অর্থ দেওয়া হবে।

করোনাভাইরাসের কারণে দেশের ভঙ্গুর অর্থনীতিকে রক্ষার জন্য গত মাসে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ৫৯০ কোটি ডলারের প্রণোদনা প্যাকেজের ঘোষণা দেন। এরমধ্যে নগদ অর্থ প্রদানও অন্তর্ভূক্ত ছিল। নিম্ন-আয়ের মানুষের প্রাত্যহিক চাহিদা মেটাতেই সরকার এককালীন এই বরাদ্দ করেছে।

সরকারি হিসাব অনুযায়ী পাকিস্তানে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছে ৩ হাজার ৮১৫ জন। এদের মধ্যে অন্তত ৬৭ জন মারা গেছে। এছাড়া চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়েছেন ৭১২ জন। গত ফেব্রুয়ারিতে দেশটিতে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত করা হয়।

সূত্র- ডন অনলাইন।

বৈশাখী নিউজ/এপি