তেল উত্তোলন ইস্যুতে যুক্তরাষ্ট্রের কাছে আত্মসমর্পণ সৌদির

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের হুমকির মুখে সৌদি আরব তেল উত্তোলন কমাতে রাজি হয়েছে।

করোনাভাইরাসের মহামারির কারণে আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বালানি তেলের দাম যখন গুরুতরভাবে কমে গেছে এবং তেল রফতানিকারক দেশগুলোর সংগঠন ওপেক ও অন্য তেল রফতানিকারক দেশগুলো যখন তেলের উৎপাদন কমানোর চেষ্টা চালিয়ে আসছিল তখন তেলের উৎপাদন স্বাভাবিক রাখার ব্যাপারে অনড় ছিল সৌদি আরব। এই অবস্থায় মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প তেলের উৎপাদন কমানোর জন্য সৌদি আরবকে হুমকি দেন।

মার্কিন হুমকির মুখে সৌদি আরব তার অবস্থান পরিবর্তন করলে রবিবার ওপেকভুক্ত দেশগুলো এবং তার বাইরের তেল উৎপাদনকারী দেশের মধ্যে তেল উৎপাদন কমানোর ব্যাপারে চূড়ান্তভাবে চুক্তি হয়। নতুন চুক্তি অনুসারে এখন প্রতিদিন দুই কোটি ব্যারেল তেল কম উত্তোলন করা হবে যা আন্তর্জাতিক বাজারে মোট তেল সরবরাহের শতকরা ২০ ভাগ।

ওপেকের এই চুক্তির সিদ্ধান্ত সংস্থার বাইরের সদস্য দেশ ব্রাজিল, কানাডা, ইন্দোনেশিয়া, নরওয়ে এবং আমেরিকা মেনে চলবে। চুক্তির পরে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প একে ভালো চুক্তি বলে মন্তব্য করেছেন।

তিনি এক টুইটার বার্তায় বলেন, আমি তাদের সঙ্গে ফোনে কথা বলেছি; ভালো চুক্তির জন্য সবাইকে ধন্যবাদ।-

সূত্র: পার্সটুডে

বৈশাখী নিউজইডি