শেয়ারবাজারে ৭ মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন লেনদেন

লেনদেন খরার মধ্যে পড়েছে দেশের শেয়ারবাজার। ধারাবাহিকভাবে লেনদেন কমতে কমতে বৃহস্পতিবার প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) প্রায় সাত মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন লেনদেন হয়েছে।

লেনদেন কমে যাওয়ার পাশাপাশি দরপতন হয়েছে বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের। অবশ্য এরপরও মূল্যসূচক কিছুটা বেড়েছে।

ডিএসইর পাশাপাশি অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জেও (সিএসই) লেনদেনে অংশ নেওয়া বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম কমেছে। এরপরও বেড়েছে মূল্যসূচক। সেই সঙ্গে লেনদেনের পরিমাণ আগের দিনের তুলনায় কিছুটা বেড়েছে।

এদিন শেয়ারবাজারে লেনদেন শুরু হয় বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বাড়ার মাধ্যমে। এতে লেনদেন শুরু হতেই ডিএসইর প্রধান সূচক ২০ পয়েন্ট বেড়ে যায়। তবে লেনদেনের সময় ২০ মিনিট পার হতেই একের পর এক প্রতিষ্ঠানের দরপতন হতে থাকে। এতে ১০টা ৪৪ মিনিটে ডিএসইর প্রধান সূচক ৩০ পয়েন্ট কমে যায়।

লেনদেনের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত এমন উত্থান-পতনের মধ্য দিয়ে লেনদেনের পুরো সময় পার করে শেয়ারবাজার। অবশ্য লেনদেন শেষে বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের ঠিকানা পতনের তালিকায় হলেও সবকটি মূল্যসূচক ঊর্ধ্বমুখী থাকে।

দিনের লেনদেন শেষে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স আগের দিনের তুলনায় ৮ পয়েন্ট বেড়ে ৬ হাজার ৯০৬ পয়েন্টে উঠে এসেছে। অপর দুই সূচকের মধ্যে ডিএসই শরিয়াহ্ ১ পয়েন্ট বেড়ে ১ হাজার ৪৬২ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। আর বাছাই করা ভালো কোম্পানি নিয়ে গঠিত ডিএসই-৩০ সূচক ১৫ পয়েন্ট বেড়ে ২ হাজার ৬০১ পয়েন্টে অবস্থান করছে।

দিনভর ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেওয়া ১৩১ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দাম বাড়ার তালিকায় নাম লিখিয়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ১৯৫টির। আর ৪৯টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ১ হাজার ৬৮ কোটি ৪২ লাখ টাকা। যা প্রায় সাত মাস বা চলতি বছরের ২৮ এপ্রিলের পর সর্বনিম্ন। ২৮ এপ্রিল ডিএসইতে লেনদেন হয় ৯৪০ কোটি ৩২ লাখ টাকা। এরপর ডিএসইতে আর হাজার কোটি টাকার কম লেনদেন হয়নি।

টাকার অঙ্কে ডিএসইতে সব থেকে বেশি লেনদেন হয়েছে বেক্সিমকোর শেয়ার। কোম্পানিটির ৯৯ কোটি ৩৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। দ্বিতীয় স্থানে থাকা এনআরবিসি ব্যাংকের ৬৩ কোটি ২১ লাখ টাকার লেনদেন হয়েছে। ৫০ কোটি ৭৪ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনের মাধ্যমে তৃতীয় স্থানে রয়েছে ব্রিটিশ আমেরিকান টোবাকো।

এছাড়া ডিএসইতে লেনদেনের দিক থেকে শীর্ষ ১০ প্রতিষ্ঠানের তালিকায় রয়েছে- লাফার্জহোলসিম বাংলাদেশ, ওরিয়ন ফর্মা, আইএফআইসি ব্যাংক, আলিফ ম্যানুফ্যাকচারিং, সাইফ পাওয়ার, ডেল্টা লাইফ ইন্স্যুরেন্স এবং বেক্সিমকো ফার্মা।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক মূল্যসূচক সিএএসপিআই বেড়েছে ১০ পয়েন্ট। বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ৩৪ কোটি ১৬ লাখ টাকা। লেনদেনে অংশ নেওয়া ২৭৪টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৯৫টির দাম বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ১৪৭টির এবং ৩২টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

বৈশাখী নিউজ/ জেপা