শুধু আইপিএলে খেলেই নারাইনের আয় ১০০ কোটি

নিঃসন্দেহে বর্তমান বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় ক্রিকেট লিগ ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ তথা আইপিএল। আর এই লিগের ইতিহাসে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ধনী বিদেশি খেলোয়াড় তালিকায় জায়গা করে নিলেন সুনীল নারিন। আর হবে নাই বা কেন, কলকাতা নাইট রাইডার্সের ‘ব্লু আইড বয়’ হলেন এই সুনীল নারিন।

সেই ২০১২ সাল থেকে কলকাতা নাইট রাইডার্সের জার্সিতেই টানা খেলে আসছেন নারিন। ২০২২ আইপিএলের জন্যেও ৬ কোটি টাকার বিনিময়ে তাঁকে রিটেন করা হয়েছে। ২০২২-এ কেকেআর-এর জার্সিতে নারিনের খেলা মানে- মোট ১১ বছর ধরে একই টিমে খেলে চলেছেন ক্যারিবীয় এই স্পিনার। আর কেকেআরে খেলার সুবাদেই নারিনের মোট উপার্জন ছাড়িয়ে গেল ১০০ কোটি। তিনি এখন বনে গেলেন আইপিএলের দ্বিতীয় ধনী বিদেশি প্লেয়ার।

ইনসাইড স্পোর্টসের একটি প্রতিবেদন অনুসারে, ওয়েস্ট ইন্ডিজের অলরাউন্ডার গত ১০ বছর ধরে কেকেআর-এ খেলে মোট উপার্জন করেছেন ৯৫.২ কোটি টাকা। আর আইপিএল ২০২২-এর জন্য তাঁকে যেহেতু রিটেন করা হয়েছে। তাই স্বাভাবিকভাবেই তাঁর আয় ১০০ কোটি পার হয়ে গেল।

আর এক্ষেত্রে নারিনের উপরে আছেন কেবল এবি ডি ভিলিয়ার্স। রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের এই ক্রিকেটারের পর আইপিএলের ইতিহাসে সবচেয়ে ধনী বিদেশী খেলোয়াড় হলেন নারিন। এবি সম্প্রতি সব ধরনের ক্রিকেট থেকেই অবসর নিয়েছেন। তবে এখনও খেলে চলেছেন নারিন।

২০২১ সালে নারিনের পারফরম্যান্স যে খুব আহামরি ছিল, তা কিন্তু নয়। তবু কলকাতা নাইট রাইডার্স তাঁকে রিটেন করেছে। তবে নারিনকে এবার কেন ধরে রাখা হল- তা নিয়ে রয়েছে নানা তর্ক-বিতর্ক। এবার দেখার বিষয়, কলকাতার দলটি যে আস্থা নারিনের উপর দেখিয়েছে, তার মান ক্যারিবীয় অলরাউন্ডার রাখতে পারেন কিনা!

নারিন ছাড়াও ওয়েস্ট ইন্ডিজেরই আরেক মারকুটে আন্দ্রে রাসেলকেও ধরে রেখেছে কেকেআর। এ ছাড়াও ভারতীয় খেলোয়াড়দের মধ্যে ভেঙ্কটেশ আইয়ার ও বরুণ চক্রবর্তীকেও রিটেন করেছে শাহরুখ খানের দল। তবে ছেড়ে দিয়েছে টাইগার সেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানকে।

বৈশাখী নিউজ/ জেপা