প্রাথমিক শিক্ষার স্তর থেকেই সকলকে প্রোগ্রামিংয়ে যুক্ত করতে হবে : ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী

ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেছেন, প্রত্যেক শিক্ষার্থীর ভবিষ্যত পেশার জন্য নয়, বরং তাদের চিন্তার জগতকে চমৎকারভাবে বিকশিত করতেই প্রোগ্রামিংয়ের ধারণা অপরিহার্য।

এ লক্ষ্যে মিশ্র পদ্ধতির শিক্ষা কার্যক্রমের আওতায়, শিক্ষার প্রাথমিক স্তর থেকে কোডিং যুক্ত করার উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, প্রাথমিক শিক্ষা স্তর থেকে সকলকে প্রোগ্রামিংয়ে যুক্ত করতে হবে।

মোস্তাফা জব্বার প্রোগ্রামিংয়ের আন্দোলনে জেলা প্রশাসনকে সম্পৃক্ত করার আহ্বান জানিয়ে বলেন, এ ব্যাপারে সরকারি পৃষ্ঠপোষকতার পাশাপাশি বেসরকারি খাতকেও এগিয়ে আসতে হবে।

ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী আজ শনিবার রাজধানীতে ভার্র্চূয়ালি আয়োজিত ‘ডিজিটাল প্রযুক্তিখাতে মেয়েদের অন্তর্ভূক্তিকরণ-বিডি গার্লস প্রকল্পের অভিজ্ঞতা বিনিময়’ শীর্ষক এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন। বাংলাদেশ ওপেন সোর্স নেটওয়ার্ক (বিডিওএসএন) এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

মোস্তাফা জব্বার বলেন, নারীদের জন্য সুষ্ঠু কাজের পরিবেশ তৈরি করার পাশাপাশি তাদের কর্মজীবনেরও নিরাপত্তা দিতে হবে। তিনি এ বিষয়ে জোরদার সামাজিক আন্দোলনের প্রয়োজনীয়তার ওপরও গুরুত্ব আরোপ করেন।

অধ্যাপক ড. জাফর ইকবালের সভাপতিত্বে এবং সাংবাদিক মুনীর হাসানের সঞ্চালনায় এ অনুষ্ঠানে কুমিল্লা জেলা প্রশাসনের প্রতিনিধি নাজমা আশরাফ, ওমেন ইন ডিজিটালের নির্বাহী আছিয়া নীলা প্রমুখ বক্তৃতা করেন।

শিক্ষায় মেয়েদের অংশগ্রহণ ছেলেদের প্রায় সমসংখ্যক হওয়ায় এবং তাদের অসাধারণ ফলাফলকে মাইলফলক হিসেবে অভিহিত করে টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী বলেন, স্বাধীনতার বড় অর্জন হচ্ছে, ‘আমরা আমাদের মেয়েদের শিক্ষায় সম্পৃক্ত করতে পেরেছি’। মেয়েদের কাজের উপযুক্ত পরিবেশ ও সুযোগ দিতে পারলে তাদের পক্ষে অসম্ভব সৃজনশীল কাজ করা সম্ভব। এ ক্ষেত্রে রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখা দরকার বলেও ডিজিটাল প্রযুক্তি বিকাশের অগ্রদূত মোস্তাফা জব্বার মনে করেন। -বাসস

বৈশাখী নিউজ/ বিসি