শ্রীলঙ্কা থেকে সরে বাংলাদেশ হচ্ছে এশিয়া কাপের ভেন্যু!

শ্রীলঙ্কার রাজনৈতিক সংকট চরমে দাঁড়িয়েছে। বিক্ষোভকারীদের প্রতিবাদের ঝড় আছড়ে পড়েছে রাষ্ট্রপতির বাসভবনে। এমনকি প্রধানমন্ত্রীর বাড়ি পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। রাষ্ট্রপতি গোটাবায়া রাজাপাকসে পদত্যাগও করেছেন।

পরিস্থিতি ক্রমেই জটিল থেকে জটিলতর হচ্ছে। এই অবস্থায় এশিয়া কাপের মতো হাই-প্রোফাইল ক্রিকেট টুর্নামেন্ট আয়োজন করা খুবই কঠিন বিষয় হবে লঙ্কানদের জন্য।

বিশেষ করে বিদেশি খেলোয়াড়দের নিরাপত্তা বড় একটা ব্যাপার। এখন যে পরিস্থিতি দাঁড়িয়েছে, তাতে এশিয়া কাপ ২০২২ আয়োজন করা শ্রীলঙ্কায় সম্ভব নয়।

সেক্ষেত্রে কোথায় হতে পারে এশিয়া কাপ? সম্ভাব্য আয়োজকের তালিকায় সবচেয়ে এগিয়ে বাংলাদেশ। কেননা ভারত এই টুর্নামেন্ট আয়োজন করতে তেমন আগ্রহী নয়। পাকিস্তানে খেলা হলে আবার ভারত সেখানে যাবে না। তাই বাংলাদেশই আয়োজক হওয়ার জোর সম্ভাবনা।

ভারতীয় গণমাধ্যম দৈনিক জাগরণ-এর সঙ্গে আলাপে লঙ্কান বোর্ডের প্রভাবশালী একটি সূত্র বলেছে, খেলোয়াড়রা এমন পরিবেশে ক্রিকেট খেলতে হয়তো নিরাপদ বোধ করবেন না।

এখন এমন পরিস্থিতি দাঁড়িয়েছে যে এশিয়া কাপ ২০২২-এর আয়োজন করা শ্রীলঙ্কায় সম্ভব নয়। পরিবর্তে বাংলাদেশ এই আসরের আয়োজক হওয়ার ক্ষেত্রে এগিয়ে আছে বলে মনে হচ্ছে।

বাংলাদেশ এর আগে ২০১২ থেকে ২০১৬ পর্যন্ত টানা তিন আসর এশিয়া কাপের আয়োজন করেছিল। ২০১৪ সালে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপও সফলভাবে আয়োজন করেছিল লাল-সবুজের দেশটি। যে টুর্নামেন্টে ভারতকে হারিয়ে ট্রফি জিতেছিল শ্রীলঙ্কা।

এশিয়া কাপে বাংলাদেশ ছাড়াও খেলবে শ্রীলঙ্কা, ভারত, পাকিস্তান এবং আফগানিস্তান। এশিয়ার অন্য দল, যেমন সংযুক্ত আরব আমিরাত, কুয়েত, সিঙ্গাপুর, হংকং-এর মধ্যে কারা খেলবে, বাছাইপর্বের টুর্নামেন্টের পরে সিদ্ধান্ত হবে। এখনও টুর্নামেন্টের সময়সূচি চূড়ান্ত হয়নি। তবে সম্ভাব্য তারিখ ২৭ আগস্ট থেকে ১১ সেপ্টেম্বর।

বৈশাখী নিউজ/ জেপা