ফেসবুকের ৫০ হাজার অ্যাকাউন্ট হ্যাকারদের নজরদারিতে

৫০ হাজার ফেসবুক-ইনস্টাগ্রাম-হোয়াটসঅ্যাপ আইডি হ্যাকারদের নজরে ছিল বলে জানিয়েছে মেটা কর্তৃপক্ষ।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক ব্যবহার করে বিশ্বজুড়ে প্রায় ৫০ হাজার মানুষের ওপর নজরদারি করেছেন হ্যাকাররা। এই কাজে যুক্ত ছিল ভারত, ইসরায়েলসহ বিভিন্ন দেশের আড়িপাতার প্রতিষ্ঠান।

বৃহস্পতিবার এসব তথ্য প্রকাশ করেছে ফেসবুকের মূল প্রতিষ্ঠান মেটা।

বলা হয়েছে, প্রায় ১০০টি দেশের অধিকারকর্মী, ভিন্নমতাবলম্বী ও সাংবাদিকদের ওপর নজরদারি করেছে প্রতিষ্ঠানগুলো।

এ জন্যই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক ও ইনস্টাগ্রাম থেকে প্রায় দেড় হাজার পেজ ও অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

এসব পেজ ব্যবহার করেই মূলত তথ্য হাতিয়ে নেওয়া হতো। এসব আড়িপাতা অ্যাকাউন্ট ও পেজ ব্যবহার করত সাতটি প্রতিষ্ঠান।

গ্রাহকের নিরাপত্তা বাড়াতে হ্যাকিং প্রতিষ্ঠানগুলোর ওপর নজরদারি বাড়িয়েছে মেটা।

কীভাবে এসব আড়িপাতার প্রতিষ্ঠানগুলোর সন্ধান মিলল, এ বিষয়ে কোনো ব্যাখ্যা ফেসবুক বা মেটার পক্ষ থেকে দেওয়া হয়নি। তবে তারা নিয়মিতভাবেই ভুয়া ও ক্ষতিকর অ্যাকাউন্টের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়ে যাচ্ছে।

যে প্রতিষ্ঠানগুলোর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়েছে, সেগুলোর মধ্যে রয়েছে ইসরায়েলের ব্ল্যাক কিউব। এই প্রতিষ্ঠানটিকে ব্যবহার করেছিলেন ধর্ষণ ও যৌন নিপীড়নের ঘটনার দায়ে সাজাপ্রাপ্ত হলিউডের প্রভাবশালী প্রযোজক হার্ভি ওয়াইনস্টিন।

ভারতের বেলট্রক্স নামের একটি প্রতিষ্ঠানের নাম এসেছে। কবওয়েবস টেকনোলজিস, কগনাইট, ব্লুহোয়াক সিআইয়ের অ্যাকাউন্ট মুছে ফেলেছে ফেসবুক। এ সবগুলোই ইসরায়েলের। এ ছাড়া উত্তর মেসিডোনিয়ার সাইট্রক্স ও চীনের আরেকটি প্রতিষ্ঠানের অ্যাকাউন্টও মুছে দিয়েছে ফেসবুক।

বৈশাখী নিউজ/ জেপা